৫১ আসনের একটি চুড়ান্ত তালিকা জামায়াত বিএনপির কাছে জমা দিয়েছে

জামায়াত ৫১ আসনের একটি চুড়ান্ত তালিকা বিএনপির কাছে জমা দিয়েছে। সর্বশেষ ২০০৮
সালে অনুষ্ঠিত নবম সংসদ নির্বাচনে বিএনপি জামায়াতকে ৩৫টি আসন দেয় এবং বিএনপি জামায়াতের যৌথ প্রার্থী ( উন্মুক্ত আসন) ছিল ৪ টি। সবমিলে ৩৯ আসনে লড়াই করে জামায়াত। যার বেশ কয়েকটি বাদ দিয়েছে এবার, আবার বেশ কয়েকটি নতুন সংসদীয় আসনকে টার্গেটে নিয়েছে জামায়াত। তাদের চিন্তা এআসন গুলোতে তারা ভাল করবে নির্বাচনে। এবারের
জাতীয় সংসদ নির্বাচনের এই আসন গুলোতে জামায়াত কোনভাবেই ছাড় দিতে চাইনা।

জামায়াতের ৫১ টি চুড়ান্ত আসন হচ্ছে-

১.ঠাকুরগাঁও-২ (বালিয়াডাঙ্গী-হরিপুর):
মাওলানা আবদুল হাকিম।
২.দিনাজপুর-১ (বীরগঞ্জ-কাহারোল):
মাওলানা আবু হানিফ।
৩.দিনাজপুর-৪ (খানসামা-চিরিরবন্দর):
মাও আফতাব উদ্দিন মোল্লা।
৪.দিনাজপুর-৬ (নবাবগঞ্জ-বিরামপুর-
হাকিমপুর-ঘোড়াঘাট):
আনোয়ারুল ইসলাম।

৫.নীলফামারী-২ (সদর)
মুক্তিযোদ্ধা মনিরুজ্জামান মন্টু।
৬.নীলফামারী-৩ (জলঢাকা):
মোহাম্মদ আজিজুল ইসলাম।
৭.লালমনিরহাট-১ (পাটগ্রাম-হাতিবান্ধা):
আবু হেনা মোঃ এরশাদ হোসেন সাজু।।
৮.রংপুর-৫ (মিঠাপুকুর):
অধ্যাপক গোলাম রব্বানী।
৯.গাইবান্ধা-১ (সুন্দরগঞ্জ):
অধ্যাপক মাজেদুর রহমান।
১০.গাইবান্ধা-৩ (সাদুল্যাপুর-পলাশবাড়ী):
মাওলানা নজরুল ইসলাম।
১১.গাইবান্ধা-৪ (গোবিন্ধগঞ্জ):
ডাঃ আবদুর রহীম।
১২.জয়পুরহাট-১ (সদর-পাঁচবিবি):
ডাঃ ফজলুর রহমান সাঈদ।
১৩.বগুড়া-২ (শিবগঞ্জ):
অধ্যক্ষ শাহাদাতুজ্জামান।
১৪.বগুড়া-৪ (কাহালু-নন্দীগ্রাম):
অধ্যক্ষ মাওঃ তায়েব আলী।
১৫.চাঁপাইনবাবগঞ্জ-১ (শিবগঞ্জ)
ড.কেরামত আলী।
১৬.চাঁপাইনবাবগঞ্জ-৩ (সদর):
নুরুল ইসলাম বুলবুল।
১৭.রাজশাহী-১ (গোদাগাড়ী -তানোর)
অধ্যাপক মুজিবুর রহমান।
১৮.নওগাঁ-৪ (মান্দা): খ ম আবদুর রাকিব।
১৯.সিরাজগঞ্জ-৪ (উল্লাপাড়া-সলঙ্গা):
মাও রফিকুল ইসলাম খান।
২০.সিরাজগঞ্জ-৫ (বেলকুচি-চৌহালি):
অধ্যক্ষ আলী আলম।
২১.পাবনা-১ (সাঁথিয়া-বেড়া):
ব্যারিষ্টার নাজিব মোমেন।
২২.পাবনা-৫ (সদর):
প্রিন্সিপাল ইকবাল হোসাইন।
২৩.কুষ্টিয়া-২ (মিরপুর-ভেড়ামারা)
মুহাম্মদ আবদুল গফুর।
২৪.চুয়াডাঙ্গা-২ (দামুড়হুদা-জীবন নগর):
মোহাম্মদ রুহুল আমিন।
২৫.ঝিনাইদহ-৩ (মহেশপুর-কোটচাঁদপুর):
অধ্যাপক মতিয়ার রহমান।
২৬.যশোর-১ (শার্শা):
মাওলানা আজিজুর রহমান।
২৭.যশোর-২ (চৌগাছা-ঝিকরগাছা):
আবু সাঈদ মুহাম্মদ শাহাদত হোসাইন।
২৮.যশোর-৬ (কেশবপুর)-
অধ্যাপক মুক্তার আলী।
২৯.বাগেরহাট-৩ (মংলা-রামপাল):
অ্যাডভোকেট আবদুল ওয়াদুদ।
৩০.বাগেরহাট-৪ (মোড়েলগঞ্জ-সরনখোলা):
অধ্যাপক আবদুল আলীম।
৩১.খুলনা-৫ (ফুলতলা-ডুমুরিয়া):
অধ্যাপক মিয়া গোলাম পরওয়ার।
৩২.খুলনা-৬ (কয়রা-পাইকগাছা):
মাও আবুল কালাম আযাদ।
৩৩.সাতক্ষীরা-১ (কলারোয়া-তালা):
অধ্যক্ষ ইজ্জতুল্লাহ।
৩৪.সাতক্ষীরা-২ (সদর):
মুহাদ্দিস আবদুল খালেক।
৩৫.সাতক্ষীরা-৩ (আশাশুনি-দেবহাটা):
মুফতি রবিউল বাশার।
৩৬.সাতক্ষীরা-৪ (কালিগঞ্জ-শ্যামনগর):
গাজী নজরুল ইসলাম।
৩৭.পিরোজপুর-১ (সদর -নাজিরপুর-স্বরূপকাঠি):
শামীম সাঈদী।
৩৮.পটুয়াখালী-২ (বাউফল):
ড.শফিকুল ইসলাম মাসুদ।
৩৯.শেরপুর-১ (সদর):
হাসান ইমাম ওয়াফি।
৪০.ময়মনসিংহ-৬ (ফুলবাড়িয়া):
অধ্যাপক জসিম উদ্দিন।
৪১.ঢাকা-১৫ (কাফরুল-মিরপুর):
ডাঃ শফিকুর রহমান।
৪২.সিলেট-৫ (জকিগঞ্জ-কানাইঘাট):
মাওলানা ফরিদ উদ্দিন চৌধুরী।
৪৩.সিলেট-৬ (বিয়ানিবাজার-গোলাপগঞ্জ):
মাওলানা হাবিবুর রহমান।
৪৪.কুমিল্লা-১০ (নাঙ্গলকোট-সদর দক্ষিণ-লালমাই):
মোহাম্মদ ইয়াছিন আরাফাত।
৪৫.কুমিল্লা-১১ (চৌদ্দগ্রাম):
ডা.সৈয়দ আবদুল্লাহ মো.তাহের।
৪৬.ফেনী-৩ (সোনাগাজী-দাগনভুঞা):
ডা.ফখরুদ্দিন মানিক।
৪৭.লক্ষীপুর-২ (রায়পুর-সদর আংশিক):
মাস্টার রুহুল আমীন।
৪৮.চট্টগ্রাম-১০ (ডাবলমুরিং):
আলহাজ্ব শাহজাহান চৌধুরী।
৪৯.চট্টগ্রাম-১৫ (লোহাগাড়া-সাতকানিয়া):
মাওলানা শামসুল ইসলাম।
৫০.চট্টগ্রাম-১৬ (বাঁশখালী):
মাওলানা জহিরুল ইসলাম।
৫১.কক্সবাজার-২ (কুতুবদিয়া-মহেশখালী):
হামিদুর রহমান আজাদ।

(নির্ভরযোগ্য  সুত্র থেকে প্রাপ্ত তথ্য।)

মন্তব্য করুন

অনুগ্রহ করিয়া এখানে আপনার মন্তব্য লিখুন!
অনুগ্রহ করিয়া এখানে আপনার নাম লিখুন!