চীনা প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান হুয়াওয়ের নির্বাহী ওয়ানঝু জামিন পেলেন

চীনা প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান হুয়াওয়ের প্রধান অর্থ কর্মকর্তা মেং ওয়ানঝু কানাডার আদালত থেকে জামিন পেয়েছেন। গতকাল মঙ্গলবার শুনানি শেষে শর্ত সাপেক্ষে তার জামিন মঞ্জুর করে কানাডার আদালত। রয়টার্সের খবরে এ কথা বলা হয়েছে।

মেং হুয়াওয়ের প্রধান আর্থিক কর্মকর্তা ও ডেপুটি চেয়ারম্যান।

হুয়াওয়ের প্রধান অর্থ কর্মকর্তা মেং ওয়ানঝুহুয়াওয়ের প্রধান অর্থ কর্মকর্তা মেং ওয়ানঝু

মার্কিন নিষেধাজ্ঞা লঙ্ঘন করে ইরানে হুয়াওয়ে লেনদেন করেছিল—এমন অভিযোগ তুলে যুক্তরাষ্ট্র মেন’কে গ্রেপ্তারে কানাডার প্রতি অনুরোধ জানিয়েছিল। যুক্তরাষ্ট্রের আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর অনুরোধে গত ১ ডিসেম্বর তাকে গ্রেপ্তার করে কানাডা।

মেন ওয়ানঝো’কে গ্রেপ্তারের পর থেকে চীনের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্র-কানাডার কূটনৈতিক বাকযুদ্ধ চরমে পৌঁছায়। এর জের ধরে বেইজিংয়ে কানাডার সাবেক এক কূটনীতিককে গ্রেপ্তার করে চীন।

যুক্তরাষ্ট্র অভিযোগ করেছে, স্কাইকম নামের এক অনানুষ্ঠানিক সহযোগী প্রতিষ্ঠানের মাধ্যে ইরানের টেলিকম কোম্পানির সঙ্গে ব্যবসা করছে হুয়াওয়ে। এতে ইরানের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) দেওয়া নিষেধাজ্ঞা লঙ্ঘন করা হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রত্যর্পণ অনুরোধে ১ ডিসেম্বর কানাডার ভাঙ্কুভার বিমানবন্দরে হুয়াওয়ের প্রতিষ্ঠাতার মেয়ে মেং ওয়ানঝুকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাঁর বিরুদ্ধে মার্কিন নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ইরানে প্রযুক্তি বিক্রি করার অভিযোগ করা হচ্ছে। তিনি হংকং থেকে মেক্সিকো যাচ্ছিলেন। ভাঙ্কুভার বিমানবন্দরে তাঁর যাত্রাবিরতি ছিল। বছরের দুই সপ্তাহ তিনি কানাডার থাকেন। সেখানে তাঁদের সম্পত্তিও রয়েছে।

বোস্টনের একটি স্কুলে তাঁর ১৬ বছরের সন্তান লেখাপড়া করে। আইনজীবী মার্টিন বলেন, তাঁকে জামিন দিলে তিনি আদালতের নিষেধাজ্ঞা ভেঙে পালাবেন না। এতে চীন ও তাঁর বাবা হুয়াওয়ে প্রতিষ্ঠাতা রেন রেন ঝেংফেইয়ের জন্য বিব্রতকর হবে।

মেং ওয়ানঝুকে গ্রেপ্তারের ঘটনাটি যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের বাণিজ্য সম্পর্কে বড় ধরনের প্রভাব ফেলতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ চীন। দ্রুত তাঁকে মুক্তি দিতে আহ্বান জানিয়েছে। মেংকে চীনের বিখ্যাত ব্যবসায়ী বলা হয়। তিনি হুয়াওয়ের প্রতিষ্ঠাতার মেয়ে।

মেং ওয়ানঝুর গ্রেপ্তারে ক্ষুব্ধ হয়েছে চীন। এই গ্রেপ্তারকে মানবাধিকার লঙ্ঘন হিসেবে আখ্যায়িত করে তাঁর মুক্তি চেয়েছে বেইজিং। দোষী সাব্যস্ত হলে যুক্তরাষ্ট্রে ৩০ বছরের কারাদণ্ড হতে পারে তাঁর।

হুয়াওয়ে বলেছে, মেং ওয়ানঝু অন্যায় কিছু করেছেন বলে তাদের জানা নেই।

মেং ওয়ানঝুর গ্রেপ্তারের ঘটনার পর হুয়াওয়ের চেয়ারম্যান লিয়াং হুয়া প্রধান অর্থ কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

মন্তব্য করুন

অনুগ্রহ করিয়া এখানে আপনার মন্তব্য লিখুন!
অনুগ্রহ করিয়া এখানে আপনার নাম লিখুন!