সিরিয়ায় মার্কিন সামরিক খরচ দিতে হবে কাতারকে: সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী

সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী আদেল আল জুবায়ের আল আদেল দাবি করেছেন, সিরিয়ায় মার্কিন সামরিক উপস্থিতির জন্য কাতারকে অর্থ পরিশোধ করতে হবে। সৌদি সরকারি সংবাদ সংস্থা এসপিএ মঙ্গলবার এ তথ্য জানিয়েছে। আদেল আল জুবায়ের বলেছেন, দোহাকে যুক্তরাষ্ট্রের দেয়া সুরক্ষা বাতিলের আগে কাতারকে অবশ্যই সিরিয়ায় সেনা পাঠাতে হবে।-খবর আল আরাবিয়া ও ডেইলি সাবাহর। তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের সামরিকঘাঁটি না থাকলে কাতারের বর্তমান সরকার এক সপ্তাহও টিকতে পারবে না। তবে সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রীর মন্তব্যের জবাবে কাতার এখন পর্যন্ত কিছু বলেনি। কাতারের আল উদায়েদ বিমানঘাঁটিতে যুক্তরাষ্ট্রের সেনাবাহিনীর প্রায় ১১ হাজার সেনা রয়েছে। যাদের অধিকাংশই বিমানবাহিনীর সদস্য। মধ্যপ্রাচ্যে যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে বড় এই সামরিকঘাঁটি দোহা থেকে ৩০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পূর্বে অবস্থিত। এখান থেকে মার্কিন বাহিনী সিরিয়া ও ইরাকেও হামলা চালায়। গত বছরের জুনের শুরুতে সৌদি আরব, আমিরাত, মিসর ও বাহরাইন হঠাৎ করে সন্ত্রাসবাদের অভিযোগ তুলে কাতারের বিরুদ্ধে বাণিজ্যিক ও কূটনৈতিক নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে। আলজাজিরা টেলিভিশন বন্ধসহ দোহাকে একটা বিশাল দাবিনামা ধরিয়ে দেয়। সেগুলো মেনে চলতে ব্যর্থ হলে আরও অবরোধ আরোপ করা হবে বলে হুমকি দেয় উপসাগরীয় দেশগুলো। কাতার সরকার সব অভিযোগ অস্বীকার করে বলেছে, আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘন করে এই নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে

মন্তব্য করুন

অনুগ্রহ করিয়া এখানে আপনার মন্তব্য লিখুন!
অনুগ্রহ করিয়া এখানে আপনার নাম লিখুন!