শেষ দিনে ট্রেনের টিকিট :৩৬ ঘণ্টা লাইনে দাঁড়িয়েও ব্যর্থ

৩৬ ঘণ্টা লাইনে দাঁড়িয়েও ব্যর্থ

কমলাপুর রেলস্টেশনে গতকালও টিকিটের জন্য দাঁড়িয়ে ছিল হাজারো মানুষ। ছবি : কালের কণ্ঠ

কেউ ৩৬ ঘণ্টা, কেউ ২৪ ঘণ্টা লাইনে দাঁড়িয়েও শেষ পর্যন্ত পায়নি ট্রেনের টিকিট। তবে উল্টো চিত্র ছিল বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন করপোরেশন বিআরটিসির বাসের টিকিট কাউন্টারে। বিআরটিসি বাসের টিকিট নিতে গতকাল বুধবার দ্বিতীয় দিনেও যাত্রীদের তেমন সাড়া মেলেনি। আবার অনলাইনেও পাওয়া যায়নি বেসরকারি বাসের টিকিট।

এদিকে আগামীকাল শুক্রবার থেকে লঞ্চের আগাম টিকিট বিক্রি শুরু হবে। ঈদ উপলক্ষে গতকাল সদরঘাটে অ্যাডভেঞ্চার-৯ নামে ঢাকা-বরিশাল রুটে নতুন একটি লঞ্চসেবার উদ্বোধন করা হয়েছে।

গতকাল সকাল ৮টা থেকে কমলাপুর রেলস্টেশনে ট্রেনের টিকিট বিক্রি শুরু হয়। আগাম টিকিট বিক্রির শেষ ও ষষ্ঠ দিনে বিক্রি হয় ৩১টি আন্তনগর ট্রেনের টিকিট। গতকাল বিক্রি করা হয় ১৫ জুনের টিকিট। কমলাপুর রেলস্টেশনের ২৬টি কাউন্টারে একসঙ্গে এসব টিকিট বিক্রি শুরু হয়। গতকাল বিক্রি হয় ২৭ হাজারেরও বেশি টিকিট। টিকিটপ্রত্যাশীদের ভিড় সামলাতে হিমশিম খেতে হয় আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে।

একপর‌্যায়ে কাউন্টার থেকে ‘টিকিট শেষ’ এ কথা শুনে অনেকে মনে কষ্ট নিয়ে লাইন ছেড়ে বাসায় ফিরে যায়। তাদের একজন সবুজবাগের শামীমা রহমান জানান, আগের রাত থেকে লাইনে দাঁড়িয়েও শেষ পর্যন্ত কাজ হয়নি। বাসের টিকিটও পাচ্ছেন না।

কাউন্টারে ধীরগতিতে টিকিট দেওয়ায় বিরক্ত আয়নাল হোসেন জানান, ২৬ ঘণ্টা অপেক্ষা করেও টিকিট পাননি তিনি। তার ওপর প্রতিটি টিকিট দিতে ১০ মিনিটের বেশি সময় নেওয়া হচ্ছিল। ফলে অনেকে লাইন ভেঙে টিকিট নিয়েছে।

এদিকে বিআরটিসি বাসের আগাম টিকিট বিক্রির দ্বিতীয় দিনে গতকাল যাত্রীদের কাছ থেকে তেমন সাড়া পাওয়া যায়নি। মঙ্গলবার সকাল থেকে বিআরটিসির বাস ডিপোগুলোয় আগাম টিকিট বিক্রি শুরু হয়। বিআরটিসি কর্তৃপক্ষের আশা, আজ বৃহস্পতিবার থেকে বিআরটিসির বাসের টিকিট বিক্রি বাড়বে। রাজধানীর জোয়ার সাহারা, কল্যাণপুর, মোহাম্মদপুর, গাবতলী, মিরপুর, গাজীপুর, নারায়ণগঞ্জ ও নরসিংদী ডিপো থেকে টিকিট বিক্রি করছে সংস্থাটি। ঈদে সংস্থাটির বহরে থাকা ৯০৪টি বাস দূরপাল্লার গন্তব্যে চলাচল করবে। ঢাকা মহানগর, গাজীপুর ও নারায়ণগঞ্জ ডিপো থেকে বিভিন্ন গন্তব্যে ৪৭৫টি বাস চলাচল করবে। আর দেশের অন্যান্য ডিপো থেকে অন্য ৩৭৫টি বাস চলাচল করবে। বিআরটিসির মতিঝিল বাস ডিপো ব্যবস্থাপক আশরাফুল আলমের মতে, সরকার নির্ধারিত ভাড়া আদায় করা হচ্ছে টিকিটে। কমলাপুর বাস ডিপোর আওতায় সাতটি রুটের আগাম টিকিট বিক্রি করা হচ্ছে। এই ডিপো থেকে ১২৫টি বাস বিভিন্ন গন্তব্যে চলাচল করবে। কমলাপুর বিআরটিসি ডিপোতে ঢাকা থেকে নেত্রকোনার কলমাকান্দা রুটের টিকিট বিক্রি হয়। গতকাল ঢাকা-বেনাপোল এসি বাস কাউন্টারে বিক্রি ছিল কম।

মন্তব্য করুন

অনুগ্রহ করিয়া এখানে আপনার মন্তব্য লিখুন!
অনুগ্রহ করিয়া এখানে আপনার নাম লিখুন!