বিশ্বের দ্বিতীয় ব্যয়বহুল শহর প্যারিস

বিশ্বের দ্বিতীয় ব্যয়বহুল শহর প্যারিস

এশিয়ান শহর সিঙ্গাপুরের পর ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিস বিশ্বের দুই নাম্বার ব্যয়বহুল শহরের খেতাব পেয়েছে। ইউরো জোনের শহরগুলোর মধ্যে প্যারিসই একমাত্র শহর যা এই তালিকায় স্থান পেয়েছে। লন্ডন ভিত্তিক ‘ক্যাবিনেট ব্রিটানিক ইকোনোমিক ইন্টেলিজেন্স ইউনিট’ (ইআইইউ) পরিচালিত এক সমীক্ষায় এ তথ্য উঠে এসেছে। গেল বারের মত এবারও এ জরীপে সিঙ্গাপুর বিশ্বের সবচেয়ে ব্যয়বহুল শহর হিসাবে স্থান পেয়েছে। দ্বিতীয় স্থানে আছে প্যারিস। তবে জ্বালানি তেলের মূল্যের দিক থেকে প্যারিস রয়েছে এক নম্বর ব্যয়বহুল শহরে। এদিকে ১৫০ টি দ্রব্যের মূল্য তালিকার উপর ভিত্তি করে বিশ্বের ১৩৩ শহরের উপর এ জরীপ পরিচালিত হয়। কেবল এলকোহল,

বিশ্বের শীর্ষ দশ ব্যয়বহুল শহর

পরিবহণ, তামাকজাত পন্যের ক্ষেত্রে প্যারিস তার অন্যান্য ইউরোপীয়ান শহরের তুলনায় সাশ্রয়ী রয়েছে। আবার জ্বালানি তেলের মূল্যের ক্ষেত্রে প্যারিস বিশ্বের সবচেয়ে ব্যয়বহুল শহর। এখানে এক লিটার জ্বালানি তেলের জন্য গড়ে ১.৪৩ ইউরো খরচ করতে হয় যেখানে সিডনিতে এ খরচ ০.৭৯ ইউরো। অন্যদিকে এক বোতল ওয়াইন কিনতে প্যারিসে গড়ে যেখানে খরচ করতে হয় ৯.৬০ ইউরো এশিয়ার শহর সিউলে সেখানে খরচ করতে হয় ২১.৮৬ ইউরো। জরীপে সবচেয়ে ব্যয়বহুল শহর সিঙ্গাপুরে একটি গাড়ি ক্রয় ও তার ব্যবস্থাপনা সবচেয়ে ব্যয়বহুল।
আবার এশিয়ার বিভিন্ন শহরের তুলনায় ইউরোপের শহরগুলোতে পরিষ্কার কার্যে খরচ বেশী, তবে সাধারণ খাবার ক্রয়ের ক্ষেত্রে ইউরোপে কম খরচ করতে হয়। তবে এ জরীপে আমারিকার কোন শহর শীর্ষ ১০ ব্যয়বহুল শহরের তালিকায় নেই। আবার ইউরোপের অন্যতম শহর লন্ডনও এবার শীর্ষ ১০ ব্যয়বহুল শহরের তালিকায় নেই। লন্ডনের অবস্থান ৩০ তম আর ম্যানচেস্টারের অবস্থান ৫৬তম।source:fb.com

মন্তব্য করুন

অনুগ্রহ করিয়া এখানে আপনার মন্তব্য লিখুন!
অনুগ্রহ করিয়া এখানে আপনার নাম লিখুন!