বিকল্প ধারার কোন বক্তব্য সঠিক?

জাতীয় প্রেসক্লাবে শনিবার সন্ধ্যায় সংবাদ সম্মেলনে ঘোষণা দিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু করেছে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। শুরুর দিকে এই ঐক্যের প্রধান উদ্যোক্তা ছিলেন ড. কামাল হোসেন ও ডা. এ কিউ এম বদরুদ্দোজা চৌধুরী (বি চৌধুরী)। কিন্তু সংবাদ সম্মেলনে বি চৌধুরীকে দেখা যায়নি। জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট গড়ে তোলার ব্যাপারে প্রথম যারা উদ্যোগ নিয়েছেন তাদের মধ্যে বিকল্প ধারার প্রেসিডেন্ট প্রফেসর বি. চৌধুরী অন্যতম। কিন্তু অবশেষে ঐক্যফ্রন্টে নেই বিকল্প ধারা! দিন দুয়েক ধরে এটাই রাজনীতির অন্যতম আলোচিত বিষয়। কেন ঐক্যফ্রন্টে নেই বিকল্প ধারা?

তবে বিকল্পধারার প্রধান বি চৌধুরীর নেতৃত্বাধীন জোট যুক্তফ্রন্টের নেতা ও নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন। মান্নাই সংবাদ সম্মেলনে ঐক্যফ্রন্টের ঘোষণা পাঠ করেন।

এ প্রশ্নের জবাব দিয়েছেন বিকল্প ধারা। ঐক্যফ্রন্টের গঠিত হওয়ার পরপরই দলটির শীর্ষ নেতৃবৃন্দ এক সংবাদ সম্মেলনে এই প্রশ্নের জবাব দেন। বিকল্প ধারার প্রেসিডেন্ট প্রফেসর বি. চৌধুরী, মহাসচিব মেজর (অব.) আবদুল মান্নান ও যুগ্ম মহাসচিব মাহী বি. চৌধুরী কথা বলেন ওই সংবাদ সম্মেলনে। তারা জোটে যোগ না দেয়ার কারণ হিসেবে দুটি বিষয় সামনে নিয়ে আসেন। একটি হল- প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে স্বাধীনতাবিরোধীদের সঙ্গে সম্পর্ক আর অন্যটি- ক্ষমতার ভারসাম্য আনা।

এতো গেল বিকল্প ধারা সংবাদ সম্মেলনে তাদের দেয়া বক্তব্য। কিন্তু নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক ও ঐক্যফ্রন্টের অন্যতম উদ্যোক্তা মাহমুদুর রহমান মান্নার সঙ্গে মাহী বি. চৌধুরীর একটি ফোনালাপ ফাঁস হওয়ার পর এই প্রশ্ন সামনে এসেছে যে, বিকল্প ধারা কী জোটে যায়নি, না কী তাদেরকে জোটে নেয়া হয়নি? কারণ ওই ফোনালাপে মাহী বি. চৌধুরীকে বলতে শোনা যায়, আমরা বেরিয়ে যাইনি, আমাদের বের করে দিলেন আপনারা। আপনারা মিটিং করলেন, আমাদের ডাকলেনই না। আপনারা ঘোষণা দেবেন, বি চৌধুরীর সঙ্গে আলোচনা করেছেন? আপনি আমাকে বলেন, বি চৌধুরী সাহেব কামাল হোসেনের বাসায় যাবেন। অথচ উনি বাসায় ছিলেনই না। একবার ফোন করে দুঃখ প্রকাশ পর্যন্ত করেননি। যৌথ ঘোষণা দেবেন, আমাদের জানিয়েছেন? আমরা কিন্তু ঐক্য থেকে বেরিয়ে আসিনি। ঐক্য কে চায় না, তা জাতির সামনে পরিষ্কার হয়ে গেছে।

ফোনালাপে মাহী বি. চৌধুরী মান্নাকে উদ্দেশ্য করে এটাও বলেন, আমার মনে হয় একটা চক্রান্তের মধ্যে আপনারা ভিকটিম হয়ে যাচ্ছেন মান্না ভাই। আমার মনে বিশ্বাস থেকে বললাম, ঐক্যপ্রক্রিয়ার নামে ষড়যন্ত্র হচ্ছে। এখানে আমাদের জড়ানোর চেষ্টা করা হচ্ছিল। আমি আল্লাহর রহমতে বেঁচে গেলাম। আপনাকে দিয়ে ঘোষণাপত্র পাঠ করানো হলো। জবাবে মান্না বলেন, না, আপনি যেভাবে মনে করছেন আমি সেভাবে মনে করছি না। আজকের ঘটনার জন্য আমি মর্মাহত।

বিকল্প ধারার শীর্ষ পর্যায়ের নেতার এমন স্ববিরোধী কথা নিয়ে বিভিন্ন ধরণের মন্তব্য চলছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে। নেটিজেনরা বিষয়টিতে দ্বিমুখী আচরণ হিসেবেই দেখছেন।

  • নয়া দিগন্ত অনলাইন

মন্তব্য করুন

অনুগ্রহ করিয়া এখানে আপনার মন্তব্য লিখুন!
অনুগ্রহ করিয়া এখানে আপনার নাম লিখুন!