বার্সেলোনায় কান্না প্যারিসে হাসি:আর্জেন্টাইন সুপারস্টার সপ্তাহে বেতন পাবেন ১ মিলিয়ন ইউরো।

সাধারণত এমনটা দেখা যায় না। প্যারিসে প্রথম সংবাদ সম্মেলন করলেন লিওনেল মেসি। আর শেষে উপস্থিত সাংবাদিকরাও মেসির নাম ধরে জয়ধ্বনি দিতে লাগলেন। ফরাসি ক্লাব প্যারিস সেইন্ট জার্মেইয়ের (পিএসজি) সঙ্গে দুই বছরের চুক্তি করেছেন লিওনেল মেসি। দলটিতে ৩০ নম্বর জার্সি পরে খেলবেন আর্জেন্টাইন সুপারস্টার। সপ্তাহে বেতন পাবেন ১ মিলিয়ন ইউরো। গতকাল প্যারিসে স্ত্রী ও তিন সন্তানকে নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত হন মেসি। তিন ছেলেরই গায়ে ছিল পিএসজি’র জার্সি।

সঙ্গে ছিলেন পিএসজি’র সভাপতি নাসের আল খেলাইফি। পিএসজি ক্লাব কিনে নিয়ে বিপুল অর্থ বিনিয়োগ করলেও কখনো উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লীগ শিরোপার স্বাদ পাননি কাতারি এ ধনকুবের। বার্সেলোনার সঙ্গে দীর্ঘ ২১ বছরের সম্পর্ক ছিন্ন করে মেসি এখন একজন ‘প্যারিশিয়ান’। গতকাল সংবাদ সম্মেলনে মেসি জানান তার প্যারিসে আসার কারণ, আবেগ-অনুভূতি ও পরিকল্পনার কথা।

মেসি বলেন, দীর্ঘদিন ধরে ফুটবল খেলছি। আগের থেকে অনেক পরিণত হয়েছি। তবে এটুকু বলতে পারি, ছোটবেলা থেকে ফুটবলের প্রতি যে ভালোবাসা ছিল, এখানে এসেও সেটাই থাকবে।

প্যারিস সেইন্ট জার্মেইয়ের দায়িত্ব সামলাচ্ছেন মেসির স্বদেশি কোচ মাউরিসিও পচেত্তিনো। মেসি বলেন, ‘পচেত্তিনোর সঙ্গে আমার কথা হয়েছে। এখানে আর্জেন্টিনার অনেকে রয়েছে (আনহেল ডি মারিয়া, লিয়ান্দ্রো পারেদেস)। ওর সঙ্গেও আমার সম্পর্ক খুবই ভালো। অনেকদিন ধরে ওকে চিনি। আবার বলছি, এদের সবার কারণেই এই ক্লাবকে বেছে নিয়েছি।’

মেসির বালক বয়সের ক্লাব নিউয়েলসও গতকাল মেসির পিএসজিতে যোগদানের খবরটি টুইট করেছে এভাবে- ‘লিওনেল মেসি, আমাদের একাডেমির সাবেক খেলোয়াড় নিউয়েলসের হয়ে ২৩৪ গোল করেছেন। তিনি পিএসজিতে যোগ দিয়েছেন। তিনি কোচ মাউরিসিও পচেত্তিনোর অধীনে খেলবেন, ১৯৯৪ সালে মেসি যখন নিউয়েলসে যোগ দেন তখন নিউয়েলসের সিনিয়র খেলোয়াড় ছিলেন তিনি।’

আর পিএসজিতে যোগ দেয়ার ব্যাপারে কোচ পচেত্তিনোর ভূমিকাও ব্যাখ্যা করেছেন মেসি। তিনি বলেন, যখনই দেখলাম যে, এখানে আসার একটা সম্ভাবনা সৃষ্টি হয়েছে, তখনই আমি পচেত্তিনোকে ফোন করলাম। আমরা দু’জনই আর্জেন্টিনার, তাই ব্যাপারটা আরও সহজ হয়েছে আমার জন্য। পিএসজি’র কর্মকর্তারাও এ ব্যাপারে সাহায্য করেছেন আমাদের।

মাত্র ১৩ বছর বয়সে বার্সেলোনার ‘লা মাসিয়া’ একাডেমিতে যোগ দেন মেসি। কাতালানদের হয়ে তার পেশাদার ফুটবলে অভিষেক ২০০৪ সালে। দীর্ঘ ২০ বছর বার্সেলোনায় কাটানোর পর মেসি বলেন, ‘তখনও জানতাম না কোনো ক্লাবে যোগ দেবো। কিন্তু তার আগেই সমর্থকদের বলেছিলাম ওদের কাছে আমি কৃতজ্ঞ। ওরা জানতো আমি কোনও শক্তিশালী দলেই যোগ দেবো এবং ফের চ্যাম্পিয়ন্স লীগ জেতার জন্য ঝাঁপাবো। আমার এবং এই ক্লাবের একই লক্ষ্য, ক্রমশ সাফল্যের দিকে এগিয়ে যাওয়া। যদি বার্সেলোনায় কোনোদিন ম্যাচ খেলতে যাই তাহলে খুব ভালো লাগবে। তবে নিজের ঘরে অন্য জার্সি পরে খেলতে একটু অদ্ভুত লাগবে।

ফরাসি লীগ ওয়ান আসর প্রসঙ্গে মেসি বলেন, আমি বরাবরই ফরাসি লীগের খেলা দেখি। কারণ পিএসজি’তে আমার বন্ধুরা রয়েছে। অন্য ক্লাবেও রয়েছে। প্যারিসের কারণেই এই লীগ অনেক বেশি প্রতিযোগিতামূলক হয়ে উঠেছে। লীগ ওয়ানকে শক্তিশালী করতে সাহায্য করেছে প্যারিস।

বিপুল অর্থ বিনিয়োগ করলেও কখনো উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লীগ শিরোপার স্বাদ পায়নি পিএসজি। মেসির প্রথম টার্গেট চ্যাম্পিয়ন্স লীগই। তিনি বলেন, চ্যাম্পিয়ন্স লীগ জেতার কাছাকাছি চলে গিয়েছিল প্যারিস। কিন্তু এই প্রতিযোগিতা জেতার জন্য ভাগ্যেরও দরকার হয়। অনেক সময় সেরা ক্লাবরাও জিততে পারে না। আমি প্যারিসকে চ্যাম্পিয়ন্স লীগে সাফল্য দেয়ার জন্য এসেছি। বার্সেলোনায় সবকিছুই পেয়েছি। এখানে এসে আবার নতুন করে সব পেতে চাই।
অবাক মেসি: মেসি বলেন, যারা আমার জন্য স্টেডিয়ামের বাইরে দাঁড়িয়ে গলা ফাটাচ্ছেন, তাদের নিয়ে আমি আপ্লুত। স্পেনে এই জিনিস দেখে এসেছি। এখন প্যারিসে এসেও সমর্থকদের উন্মাদনা দেখছি। এমনকি, এখানে আসার আগেই যে আমাকে নিয়ে মাতামাতি শুরু হয়ে গিয়েছিল সেটাও জানি। গত এক সপ্তাহে যা হলো তা বেশ অদ্ভুত। খুব দ্রুতগতিতে সব হয়ে গেল। এখন আমার সামনে নতুন জীবন। এখানে আসতে পেরে খুশি। অনেক আবেগ, অনেক অনুভূতি এই ক’দিনে হয়েছে।

পিএসজি’র সঙ্গে চুক্তি প্রসঙ্গে সবার আগে টুইট করেন নেইমার। সংবাদ সম্মেলনে মেসি বলেন, ড্রেসিংরুমে আমার অনেক বন্ধু রয়েছে। যাদের পাশে আমি খেলতে চেয়েছিলাম এখানে এসে তাদের পাচ্ছি। রোমাঞ্চ হওয়া স্বাভাবিক। নেইমার তো রয়েছেই, সঙ্গে ডি মারিয়া, পারেদেসরাও রয়েছে। এই ক্লাব বেছে নেয়ার পেছনে ওরাই আসল কারণ। বিশ্বকাপজয়ী ফরাসি স্ট্রাইকার এমবাপ্পে প্রসঙ্গে মেসি বলেন, ভাবতেই পারছি না ওর সঙ্গে রোজ খেলার সুযোগ পাবো। রোজ আমরা একসঙ্গে অনুশীলনে নামবো। যারা এখানে ছিল তাদের থেকেও ভালো সই হয়েছে এবার। সেরা ফুটবলারদের সঙ্গে খেলতে পারবো।

কবে অভিষেক তার?
এরই মধ্যে মাঠে গড়িয়েছে ফরাসি লীগ ওয়ান ফুটবল। গত শনিবার আসরে নিজেদের প্রথম ম্যাচে নবাগত দল ট্রোয়াকে ২-১ গোলে হারিয়ে এবারের মিশন শুরু করেছে পিএসজি। মেসিকে খেলতে দেখা যাবে কবে? সংবাদ সম্মেলনে এমন প্রশ্নের উত্তরে মেসি বলেন, এখনও জানি না। আমি ছুটিতে রয়েছি। প্রায় এক মাস হয়ে গেল খেলিনি। মঙ্গলবার কোচের সঙ্গে দেখা হলো। জানি এখন আমাকে একা একাই প্রাক মৌসুমের প্রস্তুতি সারতে হবে। আমি খেলার জন্য মুখিয়ে রয়েছি। তবে তারিখ এখনই জানাতে পারছি না।
সূত্র: মানব জামিন

মন্তব্য করুন

অনুগ্রহ করিয়া এখানে আপনার মন্তব্য লিখুন!
অনুগ্রহ করিয়া এখানে আপনার নাম লিখুন!