ফ্রান্সে আবারও ছুরি হামলা, নিহত২ঃ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

সন্ত্রাসী হামলার সতর্কতার মধ্যেই ফ্রান্সের রাজধানীর প্যারিসের একটি শহরতলীতে ছুরি হামলায় দুই নারীকে হত্যা করেছে এক পুরুষ।খবরে বলা হয়েছে নিহত দুই নারী সম্পর্কে মা ও মেয়ে। হামলায় আহত হয়েছে তৃতীয় এক নারী। ফ্রান্সের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সূতের বরাত দিয়ে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি জানিয়েছে, ঘটনার শিকার হওয়ারা হামলাকারীর আত্মীয় এবং তাদের পারিবারিক বিরোধের খবর খতিয়ে দেখা হচ্ছে। মধ্যপ্রাচ্যের সশস্ত্র গোষ্ঠী আইএস এই হামলায় দায় স্বীকার করলেও কোনও

প্রমাণ দেয়নি।


২০১৫ সালের নভেম্বরে ধারাবাহিক সন্ত্রাসী হামলায় প্রায় দেড়শো মানুষের প্রাণহানির পর থেকে প্যারিসে সতর্কতা জারি রয়েছে। এর মধ্যেই বৃহস্পতিবার (২৩ আগস্ট) প্যারিসের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের শহরতলী ট্রাপেস এ এই হামলার ঘটনা ঘটে।

ঐতিহাসিক শহর ভার্সাইয়ের কাছাকাছি অবস্থিত ট্রাপেস দারিদ্র ও সংঘবদ্ধ সহিংস ঘটনার জন্য পরিচিত। এই এলাকায় উল্লেখযোগ্য পরিমাণ মুসলিম ধর্মাবলম্বীর বাস। নিরাপত্তা সূত্রকে উদ্ধৃত করে ফরাসি বার্তা সংস্থা এফপি জানিয়েছে, আইএস’এ যোগ দিতে অন্তত ৫০ জন ওই এলাকা ছেড়েছে বলে ধারণা করা হয়।

ফ্রান্সের লা প্যারিসিয়ান সংবাদপত্রের খবরে বলা হয়েছে, হামলার পর কয়েকটি ছুরি নিয়ে ৩০’র কোঠায় প্রবেশ করা হামলাকারী পাশের একটি বাড়িতে ঢুকে পড়ে। বাইরের পুলিশকে লক্ষ্য করে চিৎকার করতে থাকে ‘এগিয়ে আসলে তোমাদের সবাইকে উড়িয়ে দেব।’ পরে পুলিশের গুলিতে নিহত হয় ওই হামলাকারী।

হামলায় আহত তৃতীয় নারীর অবস্থা সম্পর্কে এখনও কিছু জানা যায়নি। ইউরোপ ১ রেডিও’র খবরে বলা হয়েছে, ঘটনার শুরুতেই জরুরি ফোন করে পুলিশকে জানানো হয়। এ থেকে ধারণা করা হচ্ছে পারিবারিক বিরোধে এই হামলার ঘটনা ঘটেছে।

মন্তব্য করুন

অনুগ্রহ করিয়া এখানে আপনার মন্তব্য লিখুন!
অনুগ্রহ করিয়া এখানে আপনার নাম লিখুন!