প্যারিসে বাংলাদেশের উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণ উদ্‌যাপন 

ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসে  বাংলাদেশের স্বল্পোন্নত দেশ (এলডিসি) থেকে উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণ উদ্‌যাপন করা হয়েছে। এ উপলক্ষে গত মঙ্গলবার (২০ মার্চ) প্যারিসে বাংলাদেশ দূতাবাসে এক আনন্দ উৎসবের আয়োজন করা হয়। চ্যান্সারি ভবনে এক আলোচনা সভার আয়োজন করে দূতাবাস।অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ফ্রান্সে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত ও ইউনেসকোতে বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি কাজী ইমতিয়াজ হোসেন। এতে দূতাবাসের কর্মকর্তারা ছাড়াও প্যারিসে বসবাসরত বাংলাদেশের গুণী ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন। এ ছাড়া বাংলাদেশি কমিউনিটির প্রতিনিধিরাও এতে যোগ দেন। অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের আর্থসামাজিক উন্নয়নের ওপর একটি তথ্যচিত্র প্রদর্শন করা হয়। পাশাপাশি ‘এলডিসি গ্র্যাজুয়েশন অব বাংলাদেশ: সিগনিফিকেন্স অ্যান্ড ওয়ে ফরোয়ার্ড’ শীর্ষক একটি পাওয়ার পয়েন্ট উপস্থাপনা তুলে ধরা হয় আগত অতিথিদের সামনে। পাওয়ার পয়েন্ট উপস্থাপনা করেন কমার্শিয়াল কাউন্সেলর দিলারা বেগম। পরে ‘বাংলাদেশের এডিসি গ্র্যাজুয়েশন ও বিশেষজ্ঞ মতামত’ শীর্ষক একটি আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়।
অনুষ্ঠানে পাওয়ার পয়েন্ট উপস্থাপনা করেন দিলারা বেগমঅনুষ্ঠানে পাওয়ার পয়েন্ট উপস্থাপনা করেন দিলারা বেগম

অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রদূত ইমতিয়াজ হোসেন বলেন, এটা বাংলাদেশের জন্য এক ঐতিহাসিক মুহূর্ত। এটা সম্ভব হয়েছে আমাদের দূরদৃষ্টিসম্পন্ন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুযোগ্য নেতৃত্বের জন্য। তাঁর নেতৃত্বে বাংলাদেশ দৃঢ়তার সঙ্গে দীর্ঘমেয়াদি উন্নয়ন কৌশল গ্রহণ করেছে, যা দ্রুত ও সমন্বিত উন্নয়নকে সম্ভব করে তুলেছে। এর মাধ্যমে সোনার বাংলা গড়ার পথে আমরা আরও এক ধাপ এগিয়ে গেলাম।
রাষ্ট্রদূত তাঁর বক্তব্যে বাংলাদেশের বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্প ও কৌশলের কথা তুলে ধরেন। এর মধ্যে ডিজিটাল বাংলাদেশ শীর্ষক উন্নয়ন কৌশলের কথা তিনি বিশেষভাবে উল্লেখ করেন। এ ছাড়া তিনি সম্প্রতি গৃহীত বিভিন্ন বড় প্রকল্পের কথাও তিনি উল্লেখ করেন। এর মধ্যে বঙ্গবন্ধু-১ স্যাটেলাইট, পদ্মাসেতু, ঢাকা মেট্রো রেল, পায়রা গভীর সমুদ্রবন্দর বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য।
উপস্থিতির একাংশউপস্থিতির একাংশ

উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণের এই বিশেষ মুহূর্ত উদ্‌যাপনের অংশ হিসেবে দেশের সপ্তাহব্যাপী অনুষ্ঠানমালার সঙ্গে তাল মিলিয়ে প্যারিস দূতাবাসও পাঁচ দিনব্যাপী অনুষ্ঠানমালার আয়োজন করে। ১৯ মার্চ শুরু হওয়া ‘কনস্যুলার উইক’ শীর্ষক এই অনুষ্ঠানমালা শেষ হয় গতকাল ২৩ মার্চ। বিজ্ঞপ্তি

মন্তব্য করুন

অনুগ্রহ করিয়া এখানে আপনার মন্তব্য লিখুন!
অনুগ্রহ করিয়া এখানে আপনার নাম লিখুন!