নিরাপত্তার অভাব, নির্বাচনী এলাকা ছাড়লেন রেজা কিবরিয়া

হবিগঞ্জ-১ (নবীগঞ্জ-বাহুবল) আসনে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী গণফোরামের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য রেজা কিবরিয়া নির্বাচনী এলাকা ছেড়ে ঢাকায় চলে গেছেন। নিরাপত্তাহীনতা বোধ করায় আজ রোববার সকালে নির্বাচনী এলাকায় গ্রামের বাড়ি ছেড়ে ঢাকায় চলে গেছেন বলে জানিয়েছেন তিনি।

জানতে চাইলে রেজা কিবরিয়া রোববার দুপুরে প্রথম আলোকে বলেন, দেশে ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থীদের ওপর যেভাবে হামলা ও হেনস্তা করা হচ্ছে, তাতে তিনি নিরাপত্তাহীনতা বোধ করছেন। এ ছাড়া তাঁর দল গণফোরাম তাঁর নিরাপত্তার বিষয়টিকে বেশ গুরুত্ব দিয়ে দেখছে। এ কারণে দলীয় প্রধানের নির্দেশে আপাতত তিনি নির্বাচনী এলাকায় থাকছেন না। তবে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে তিনি আবার জনগণের পাশে থাকবেন।

নবীগঞ্জ ও বাহুবল উপজেলা নিয়ে হবিগঞ্জ-১ আসন। অর্থনীতিবিদ রেজা কিবরিয়া ২০০৫ সালের ২৭ জানুয়ারি হবিগঞ্জে গ্রেনেড হামলায় নিহত সাবেক অর্থমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের নেতা শাহ এ এম এস কিবরিয়ার ছেলে। রেজা কিবরিয়া গত ১৮ নভেম্বর গণফোরামে যোগ দেন। একাদশ সংসদ নির্বাচনে তিনি হবিগঞ্জ-১ আসনে ঐক্যফ্রন্ট থেকে মনোনয়ন পান।

রেজা কিবরিয়া প্রচারণা চালাতে প্রথমে ১০ ডিসেম্বর নিজ নির্বাচনী এলাকায় আসেন। ব্যক্তিগত কাজে পরের দিন তিনি ঢাকায় চলে যান। পরবর্তী সময় গত শনিবার তিনি নির্বাচনী এলাকায় আসেন এবং গণসংযোগ করেন। ওই দিন তিনি সংবাদ সম্মেলন করেন বাহুবল উপজেলায়। এ সময় তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের বর্তমান কর্মকাণ্ড দেখলে তাঁর বাবা আর আওয়ামী লীগ করতেন না। তিনি এ দল ছাড়তেন।

রোববার রেজা কিবরিয়া বলেন, তিনি প্রস্তুতি নিয়ে এসেছিলেন নির্বাচনের আগ পর্যন্ত এলাকায় থাকবেন। কিন্তু এলাকায় এসে দেখতে পান ঐক্যফ্রন্টের ১৬-১৭ জন নেতাকে বিভিন্ন গায়েবি মামলায় পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে। এতে দলে আতঙ্ক ছড়িয়েছে পুলিশ। তিনি স্থানীয় পুলিশের সঙ্গে এ নিয়ে কথাও বলেছেন।

রেজা কিবরিয়া বলেন, দেশের বিভিন্ন স্থানে ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থীদের ওপর যে হারে হামলা চালানো হচ্ছে, এতে নির্বাচন করার মতো পরিবেশ দেখা যাচ্ছে না। তবে তিনি জনগণকে এ সংকটে ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বান জানান।

জানতে চাইলে হবিগঞ্জের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ উল্ল্যাহ প্রথম আলোকে বলেন, তিনি (রেজা কিবরিয়া) যদি নিরাপত্তাহীনতা বোধ করেই থাকেন, তাহলে বিষয়টি পুলিশকে জানাতে পারতেন। তবে তাঁর জানামতে ওই এলাকায় কোনো ঝুঁকির কারণ নেই।

মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাইয়ের সময় একটি ক্রেডিট কার্ডের বিপরীতে সাড়ে ৫ হাজার টাকা বকেয়া থাকায় ঋণখেলাপি দেখিয়ে রেজা কিবরিয়ার মনোনয়নপত্র বাতিল করেছিলেন জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা। তিনি নির্বাচন কমিশনে আপিল করে প্রার্থিতা ফিরে পান। ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী হলেও একই রিটার্নিং কর্মকর্তা প্রতীক বরাদ্দের দিন রেজা কিবরিয়াকে ধানের শীষ প্রতীক বরাদ্দ দেননি। অবশ্য এক দিন পর ধানের শীষ প্রতীক বরাদ্দ পান তিনি।

(প্রথম আলো)

মন্তব্য করুন

অনুগ্রহ করিয়া এখানে আপনার মন্তব্য লিখুন!
অনুগ্রহ করিয়া এখানে আপনার নাম লিখুন!