দশম থেকে নবম শ্রেণিতে আওয়ামী লীগের প্রার্থী মমতাজ

 ঢাকা : আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মানিকগঞ্জ-২ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী কণ্ঠশিল্পী মমতাজের বাড়ির দাম প্রায় দেড় কোটি টাকা কমেছে। জমির পরিমাণ বৃদ্ধি পেলেও দাম কমেছে প্রায় ৩ কোটি ৭০ লাখ টাকা। তবে ঋণের পরিমাণ বৃদ্ধি পেয়েছে তার। গত বুধবার নির্বাচন কমিশনে দাখিল করা হলফনামা থেকে এ তথ্য পাওয়া গেছে।

গত নির্বাচনের হলফনামায় মমতাজের দুটি বাড়ির দাম ৯ কোটি টাকা দেখানো হলেও এবারের হলফনামায় দাম ৭ কোটি ৫৭ লাখ টাকা উল্লেখ করা হয়েছে, যা আগের তুলনায় ১ কোটি ৪৩ লাখ টাকা কম। বর্তমানে কৃষি ও অকৃষিজ প্রায় ২ হাজার ১০০ শতাংশ বা ১ হাজার ২৭২ কাঠা জমি রয়েছে তার, যার বাজারমূল্য উল্লেখ করা হয়েছে প্রায় ১ কোটি ৭৩ লাখ ১৯ হাজার ৫০৪ টাকা। আগে ৫৫০ কাঠা জমির মূল্য দেখিয়েছিলেন ৫ কোটি ৪৫ লাখ টাকা। অর্থাৎ ৭২২ কাঠা জমি বৃদ্ধি পেলেও দাম ৩ কোটি ৭০ লাখ টাকা কমেছে।

জনপ্রিয় এ কণ্ঠশিল্পী শিক্ষাগত যোগ্যতা হিসেবে নবম শ্রেণি উল্লেখ করেছেন। গত হলফনামায় দশম শ্রেণি উল্লেখ ছিল। যদিও সম্প্রতি তিনি জাতীয় পরিচয়পত্রে পঞ্চম শ্রেণি সংশোধন করে দশম শ্রেণি করেছেন।

পেশা হিসেবে ব্যবসা উল্লেখ করলেও এই খাতে কোনো আয় দেখাননি তিনি। বর্তমানে তার মোট আয়ের পরিমাণ ৩৮ লাখ ৮৪ হাজার ২৭৬ টাকা, যা আগে ছিল ৭৯ লাখ ২৬ হাজার ৮৩৪ টাকা। আর অস্থাবর সম্পত্তি ১ কোটি ৭ লাখ ৩১ হাজার থেকে ৫ কোটি ৬৪ লাখ টাকায় উন্নীত হয়েছে। এর মধ্যে একটি গাড়ির জায়গায় তার গাড়ি হয়েছে তিনটি। আগে স্বামীর নামে কোনো সম্পদ না থাকলেও বর্তমানে স্বামীর নামে প্রায় ৩০ লাখ টাকার সম্পদ রয়েছে। এ ছাড়া তিন সন্তানের নামে ৬৫ লাখ ৭৬ হাজার টাকা রয়েছে।

৫ বছর আগে তার স্থাবর সম্পত্তি ১৫ কোটি ৩৫ লাখ টাকা থাকলেও তা সাড়ে ৬ কোটি টাকা কমে ৯ কোটি ৩০ লাখ টাকা হয়েছে। গত হলফনামায় ৪০ লাখ টাকা ঋণ দেখালেও বর্তমানে ইনভেস্টমেন্ট করপোরেশন অব বাংলাদেশ ও মধুমতি ব্যাংকে ব্যবসায়িক ও ব্যক্তিগত দায় প্রায় ৩ কোটি ৩৪ লাখ ১১ হাজার টাকা।

মন্তব্য করুন

অনুগ্রহ করিয়া এখানে আপনার মন্তব্য লিখুন!
অনুগ্রহ করিয়া এখানে আপনার নাম লিখুন!