ছাত্রদের ফাঁসাতে নকল আইডি বানিয়ে ধরা খেল পুলিশ

নিরাপদ সড়ক চাই আন্দোলনের ছাত্রদের ফাঁসাতে নকল আইডি কার্ড ও স্কুল ড্রেস বানিয়ে হাতেনাতে ধরা খেল পুলিশ। গ্রেফতারের সময় ছাত্ররা যে পোশাক পড়ে ছিল, তড়িঘড়ি করে সেই পোশাকেই আইডি কার্ড বানায় পুলিশ। আইডি কার্ড প্রতিষ্ঠানগুলোর অফিশিয়াল ড্রেসের ছবি দিয়ে হয়, তাড়াহুড়ায় এটা খেয়াল করতে ভুল হয়ে গেছে এই মর্মে সংশ্লিষ্ট থানার একজন এসআই ওসির কাছে জবাবদিহী করেন।

গত ৫ সেপ্টেম্বর বুধবার রাতে বিভিন্ন জায়গায় গণগ্রেফতার চালিয়ে অন্তত ৪০ শিক্ষার্থীকে আটক করে পুলিশ। এরমধ্যে ৬ সেপ্টেম্বর ১২ জনকে রেখে বাকিদের মুক্তি দেওয়া হয়। এদিকে রোববার দুপুরে নিখোঁজ ১২ শিক্ষার্থীর অভিভাবকদের সংবাদ সন্মেলনের একদিন পর আজ সোমবার দুপুরে তেজগাঁ থানায় দায়ের করা মামলায় শিক্ষার্থীদের গ্রেফতার দেখানো হয়।

গ্রেফতারের সময় তোলা ছবি দিয়েই নকল আইডি কার্ড বানায় পুলিশ, গ্রেফতারকৃত শিক্ষার্থীরা হলেন, বাংলাদেশ টেক্সটাইল ইউনিভার্সিটির দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র মুজাহিদুল ইসলাম, ঢাকা পলিটেকনিকের কম্পিউটার বিভাগের তৃতীয় পর্বের ছাত্র মাহফুজ আহমেদ, অটোমোবাইল পঞ্চম পর্বের ছাত্র মেহেদী হাসান রাজিব, করোটিয়ার সরকারি সা’দৎ কলেজের অনার্স ফলপ্রার্থী সাইফুল্লাহ এবং জহিরুল ইসলাম হাসিব ও আল আমিন।

অনুসন্ধানে জানা যায়, সাধারন শিক্ষার্থীদের আন্দোলনকে দমিয়ে রাখতে এবং বিরোধী শিবিরে আতঙ্ক ছড়াতে তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু ও আওয়ামী নেতা মাহবুবুল আলম হানিফের নির্দেশেই পুলিশের এস আই আব্দুর রহমান,ক্যান্টোলমেন্ট জোনাল টিম,ডিবি উত্তর বিভাগ বাদি হয়ে এই মামলা দায়ের করে। এই মামলায় ১২ জনকে ২ দিনের রিমান্ড দিয়েছে পুলিশ।

নকল স্কুল ড্রেসও তৈরি করে পুলিশ, বিশেষ সূত্রে জানাযায়, সরকারের উচ্চ পর্যায়ের আদেশে গ্রেফতারকৃত শিক্ষার্থীদের নামে নকল আইডি কার্ড তৈরি করে পুলিশ। গ্রেফতার অবস্থায় যে পোশাক পরা ছিল সেই পোশাকে আইডি কার্ডের ছবি তুলে আইডি কার্ড ছাপানো হয়। পাশাপাশি মামলা সাজাতে নকল স্কুল ড্রেসও তৈরি করে পুলিশ।

মন্তব্য করুন

অনুগ্রহ করিয়া এখানে আপনার মন্তব্য লিখুন!
অনুগ্রহ করিয়া এখানে আপনার নাম লিখুন!