‘কেন্দ্র দখলে বিএনপি বাধা দিলে চোখ উপড়ে ফেলা হবে’ (ভিডিও)

 সুনামগঞ্জ: সুনামগঞ্জ-২ (দিরাই-শাল্লা) আসনের নির্বাচনী এক সমাবেশে দিরাই পৌরসভার মেয়র ও উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক মোশাররফ মিয়া হুমকি দিয়ে বলেন, নৌকার পক্ষে আসনের সবগুলো ভোটকেন্দ্র দখল করা হবে এবং এতে বিএনপি নেতাকর্মীরা বাধা দিলে তাদের চোখ উপড়ে ফেলা হবে।

মঙ্গলবার (১১ ডিসেম্বর) উপজেলা সদরে সুনামগঞ্জ-২ আসনের আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী জয় সেন গুপ্তার সমর্থনে আয়োজিত এক নির্বাচনী সমাবেশে তিনি প্রকাশ্যে এ হুমকি দেন।
তিনি ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্য করে বলেন, ‘বিএনপিকে কোনো সেন্টারে আধিপত্য বিস্তার করতে দেয়া যাবে না, ওদের প্রত্যেকটি সেন্টার আমাদের নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসতে হবে। সুতরাং যারা ছাত্রলীগ আছ, তোমাদের পড়াশুনা করেই এবার নির্বাচন করতে হবে। কোনো সেন্টার বিএনপিকে দেয়া যাবে না । এতে বিএনপির কোনো কর্মী, কোনো নেতা যদি চোখ রাঙায় তাহলে তার চোখ তুলে দেবে। বিএনপির কোনো নেতা কোনো কর্মীকে একটা কথা বললে তার চোখ উপড়ে ফেলা হবে। সুতরাং নির্বাচনে সবকটি সেন্টার আমাদের দখলে থাকবে।’
পৌর মেয়র ও আওয়ামী লীগ নেতা মোশারফ মিয়ার এ বিতর্কিত বক্তব্যটি সভা শেষ হওয়ার পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে পড়ে। এ বক্তব্য শুনে হতবাক হয়ে যান পক্ষ-প্রতিপক্ষের সবাই।
এ বক্তব্যটি দিরাইয়ে ‘টক অব দ্যা উপজেলা’ হিসেবে স্বীকৃতি পায়।
এই বক্তব্যকে ভোটের মাঠের শান্তিপূর্ণ পরিস্থিতির জন্য হুমকি হিসেবে দেখছে প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী দল বিএনপির প্রার্থী ও তার সমর্থকরা।
এ বিষয়ে দ্রুত আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে নির্বাচন কমিশনের প্রতি আহ্বান জানান বিএনপির নেতাকর্মীরা।
তবে আলোচিত এ ঘটনার ব্যাপারে আওয়ামী লীগ প্রার্থী ড. জয় সেন গুপ্তার কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।
অপরদিকে ওই আসনের বিএনপির প্রার্থী সাবেক এমপি নাছির উদ্দিন চৌধুরী এ নিয়ে কোনো মন্তব্য করতে অপারগতা প্রকাশ করেন।
এ ব্যাপারে জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আব্দুল আহাদ সাংবাদিকদের বলেন, অভিযোগ সম্পর্কে জেনে এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।
উল্লেখ্য, দিরাই উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক এবং দিরাই পৌরসভার মেয়র মোশাররফ মিয়া আলোচিত ট্রিপল মার্ডার মামলার পলাতক ও আদালত অবমাননার দায়ে গ্রেফতারি পরোয়ানাভুক্ত আসামি। দিরাইয়ের আলোচিত এ পৌর মেয়র এর আগে বিভিন্ন ঘটনায় একাধিকবার সংবাদের শিরোনাম হয়েছেন।
শীর্ষনিউজ/এনএস

মন্তব্য করুন

অনুগ্রহ করিয়া এখানে আপনার মন্তব্য লিখুন!
অনুগ্রহ করিয়া এখানে আপনার নাম লিখুন!