করমর্দন না করায় আলজেরিয় নারীকে নাগরিকত্ব দিল না ফ্রান্স 

করমর্দন না করায় আলজেরিয় নারীকে নাগরিকত্ব দিল না ফ্রান্স

জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তাদের সঙ্গে করমর্দন করতে অস্বীকৃতি জানানোয় এক আলজেরিয় মুসলিম নারীকে নাগরিকত্ব না দিতে আদেশ দিয়েছে ফ্রান্সের একটি আদালত। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই নারীর দাবি ‘ধর্মীয় বিশ্বাস’ এর কারণে তিনি পুরুষ কর্মকর্তাদের সঙ্গে করমর্দন করা থেকে বিরত থেকেছেন।  সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা এ খবর জানিয়েছে।

ফ্রান্স সরকারের এক নির্দেশনায় বলা হয়েছে, ওই নারী এখনও ফরাসি সমাজের সঙ্গে মিশে যেতে পারেননি তাই তার নাগরিকত্ব বাদ দেওয়া হয়েছে। তবে ওই নারী ফ্রান্সের সর্বোচ্চ প্রশাসনিক আদালতে ওই নির্দেশ স্থগিত করার আবেদন করেছেন।আলজেরিয় ওই নারী ২০১০ সালে এক ফরাসি লোককে বিয়ে করেন। ২০১৬ সালে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ইসেরে অঞ্চলের নাগরিকত্ব প্রদান অনুষ্ঠানে তিনি সেখানে উপস্থিত জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা ও স্থানীয় রাজনীতিকদের সঙ্গে করমর্দন করতে অস্বীকৃতি জানান। কারণ ইসলামে অপরিচিত নারী-পুরুষের মধ্যে করমর্দন করা সাধারণত নিষিদ্ধ। প্রতীকী প্রথা ত্যাগ করে ফরাসি সংস্কৃতি আত্মস্থ করতে পারেনি অভিযোগ করে তখন সরকার তার নাগরিকত্ব দিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছিল।ওই আলজেরিয়ান নারী এই সিদ্ধান্তকে ‘ক্ষমতার অপব্যবহার’ হিসেবে অ্যাখ্যা দিলেও স্টেট কাউন্সিল এই নির্দেশ দেন। আর ফ্রান্সের আদালত বলেছে, সরকার আইনের অপপ্রয়োগ করেনি।২০১৬ সালে সুইডেনে আঞ্চলিক কর্তৃপক্ষ দুই মুসলিম শিক্ষার্থীকে তাদের নারী শিক্ষকের সঙ্গে করমর্দন করার আদেশ জারি করেছিল। নয়তো তাদের জরিমানার মুখোমুখি করার কথাও বলা হয়েছিল। ওই ঘটনায় ব্যাপক সমালোচনা হয়েছিল।

http://rmc.bfmtv.com/emission/elle-refuse-de-serrer-la-main-au-prefet-sa-demande-de-naturalisation-rejetee-1424056.html

মন্তব্য করুন

অনুগ্রহ করিয়া এখানে আপনার মন্তব্য লিখুন!
অনুগ্রহ করিয়া এখানে আপনার নাম লিখুন!