ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের সাথে জামায়াত নিয়ে কোন কথাই হয়নি : ড. কামাল হোসেন

জামায়াতে ইসলামী বিএনপির টিকিট পাবে জানলে তিনি ঐক্যফ্রন্টের অংশ হতেন না-ভারতীয় দৈনিক ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের সাক্ষাৎকারে ড. কামাল হোসেন এমন কথা বলেননি বলে অভিযোগ করেছেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ড. কামাল হোসেন।

তিনি বলেন, দেশের জনগণকে বেকায়দায় ফেলতে ইন্ডিয়ান গণমাধ্যম কিছু দেশীয় গণমাধ্যমের যোগ সাজশে সাজানো নাটক পরিবেশন করছে। আর তথ্য বিকৃতির দায়ে দেশের গণতন্ত্র ধ্বংসের জন্য গণমাধ্যমগুলোকে সরাসরি দায়ী করেছেন এ বুদ্ধিজীবি।

তার মতে, দেশে নির্বাচনের জন্য জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট যে ধৈর্যে্যর পরীক্ষা দিয়েছে তা হবে ২য় স্বাধীনতা অর্জনের শামিল। শুক্রবার সকালে বিডিপ্রেস২৪ এর সাথে একান্ত স্বাক্ষাৎকারে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, আওয়ামীলীগকে ভারত সমর্থন দেওয়া অব্যাহত রাখলে বাংলাদেশের গণতন্ত্রায়ণ প্রক্রিয়া ধ্বংস হয়ে যেতে পারে। আর এসব গণমাধ্যম দিয়ে ভারত ঐক্যফ্রন্টের মুখ বন্ধ রাখতে চাইছে।

শুধু তাই নয়, দেশের এই ক্রান্তিলগ্নে দেশে নতুন করে রাজাকারদের সৃষ্টি হয়েছে। তথ্য সন্ত্রাসীর সৃষ্টি হয়েছে। ঐক্যফ্রন্ট ক্ষমতায় গিয়ে প্রথমে দেশ বিরোধী এসব রাজাকারদের বিচার করবে বলেও জোর দেন।

হঠাৎ ভারতীয় মিডিয়া কেন তৎপর এমন প্রশ্নের জবাবে ড. কামাল বলেন, গণমাধ্যম এখন আর তার নিজস্ব গতিতে চলছে না। গণমাধ্যমও সরকারের বিরোধী শক্তিকে বিরোধী শক্তিভাবে।

দেশের মানুষ যেখানে মন খুলে কথা বলবে এবং তা হুবহু প্রকাশ করবে, কিন্ত তা না করে গণমাধ্যম ভোগ বিলাশের মাধ্যমে দিন কাটাচ্ছে। কতিপয় সরকারের এজেন্টরাও ভারতীয় মিডিয়ার পেছনে কোটি কোটি টাকা ইনভেস্ট করে এমন অপপ্রচার চালাচ্ছে। যা প্রতিবেশি দেশ হিসেবে ভারতের কাছ থেকে কখনই আশা করে না বাংলাদেশের মানুষ।

স্বাক্ষাৎকারের শেষ পর্যায়ে, গণমাধ্যমকে আরো দলমত নির্বিশেষে জোড়ালো ভূমি

বিডিপ্রেস২৪

মন্তব্য করুন

অনুগ্রহ করিয়া এখানে আপনার মন্তব্য লিখুন!
অনুগ্রহ করিয়া এখানে আপনার নাম লিখুন!