স্বাধীনতার দাবিতে উত্তাল স্পেনের”কাতালোনিয়ার রাজধানী বার্সেলোনা

সাধারণ ধর্মঘটে স্পেনের কাতালোনিয়ায় অচলাবস্থা

এইচ এম দবির তালুকদার স্পেন প্রতিনিধি :
স্পেন ইউরোপ মহাদেশের চতুর্থ বৃহৎ রাষ্ট্র যাঁর অনেকগুলি স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চল রয়েছে তার মধ্যে একটি (Cataluña) কাতালুনিয়া l
স্পেনের উত্তর-পূর্বাঞ্চলের স্বায়ত্বশাসিত অঙ্গরাজ্য এটি, বার্সেলোনা শহরটিকে কাতালোনিয়ার রাজধানী বলা হয় l

স্পেন থেকে পুরোপুরি পৃথক হতে এরই মধ্যে কয়েক বার স্বাধীনতা ঘোষণা করেছে কাতালোনিয়া।
গত দুই বছর আগে স্বাধীনতার ডাক দিয়ে রাস্তায় নেমে পড়ে কাতালানরা, এসময় স্পেনের পুলিশ গ্রেপ্তার করে কাতালোনিয়ার স্বাধীনতাকামী ৭ নেতা কে l
এ সময় স্বাধীনতার নেতৃত্বে থাকা সর্বোচ্চ নেতা কারলোস পুচডিমন্ গ্রেফতারের ভয়ে পালিয়ে বেলজিয়ামে আশ্রয় নেন l
স্বাধীনতার নাম ধরে বিক্ষোভ ভাঙচুর আগুন লাগানো অরাজকতা সৃষ্টি উসকানি দাতাদের কয়েক জনকে,গত সোমবার স্পেনের সরকার বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড আদেশ দিয়ে জেলহাজতে পাঠিয়েছে l
এমন খবর পাওয়ার সাথে সাথে কাতালোনিয়ার রাজধানী বার্সেলোনা শহরে ভাঙচুর অগ্নিসংযোগ চালায় স্বাধীনতাকামী মানুষ, স্বাধীনতার জন্য সরব হয়ে উঠে আবারো পুরো কাতালোনিয়া l
পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করেছে কেন্দ্রীয় সরকার l
গত পাঁচ দিনের আন্দোলনে ৩১ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ,এছাড়াও নারী-পুরুষসহ ৯০ জন”কে গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে l
স্বাধীনতার প্রশ্নে আপস নেই, এবার মোদের স্বাধীনতা চাই, দাবি পূরণে আজ বার্সেলোনা সহ পুরো কাতালোনিয়ায় সকাল-সন্ধ্যা হরতালের ডাক দিয়েছে স্বাধীনতাকামীরা l
ইতিমধ্যেই স্পেনের আরো কয়টি সাহিত্য শাসিত অঞ্চল,স্বাধীনতার জন্য রাজ পথে নামতে পারে বলে সন্দেহ করা হচ্ছে ,তার মধ্যে রয়েছে পাইস বাস্ক, বালেন্সিয়া, সেবিইয়া, বিলবাও, এবং মালাগা,আন্দালুসিয় এস্টোরিয়া সহ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ স্বায়ত্বশাসিত অঞ্চল l
বিক্ষোভের মুখে জনজীবন বিপন্ন হয়ে পড়েছে,ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ ছিল বেড়ে না যায় তা বিবেচনায় রেখে, স্পেনের কেন্দ্রীয় সরকার দেশ জুড়ে সর্বোচ্চ সতর্কাবস্থা জারি রেখেছে

মন্তব্য করুন

অনুগ্রহ করিয়া এখানে আপনার মন্তব্য লিখুন!
অনুগ্রহ করিয়া এখানে আপনার নাম লিখুন!