স্বর্গ যেন নরক: মো:মোশারফ হোসেন

আমার স্বর্গটা কে বানালো নরক?

সেকি মানুষ নাকি নরমাংস খাদক?

ইতিহাসের আস্তাকুঁড়ে নিক্ষিপ্ত

ফিরে এলো ফের হিন্দু মালাউন ঠগ!!

গোড়া হিন্দু ওরা,

ওদেরকে ক্ষমতার চাবি দিয়েছিল কারা

তারা কোন সে আহাম্মক!

ক্ষমতা যাদের মানুষ হত্যার ছক!!

বিশ্বজুড়ে উন্নত আমার শির

আমার এ দেশ শ্রেষ্ঠ উপমা শান্তি সুনিবিড়;

দুনিয়ার স্বর্গ চিরচেনা কাশ্মির।

আমার দেশ সবার স্বর্গ

হিন্দুরা তাতেই ধরেছে খড়্গ!

দেখেও দেখেনা কর্তাবর্গ;

দেখে যেও কখনো স্বর্গ কেমন নর্ক!!

ওরা গোড়া  হিন্দু

কে বলে মানুষ ওদের?

দিলে দয়া নেই এক বিন্দু!

পুড়িয়ে পিটিয়ে কুপিয়ে করে খুন,

মানবতাহীন রক্ত পিপাষু

ওরা অমানুষ বহুগুণ!!

আমরা সেই সে মুসলিম জাতি

যারা পশ্চাদপদ ভারতকে

এনেদিয়েছি সুখ্যাতি;

কতটা দরদ দেখিয়েছি তাদের

নেইকো মাপার কোন গণিত

কিম্বা জ্যামিতি।।

যাদের বাঁচিয়েছি মৃত্যুর হাত

থেকে জীবন বাজী রেখে,

তারাই আজ ইজ্জত লুটে

মুখে দেয় বেইজ্জতের কালি মেখে!

দেখিনি সেদিন শিখ,জৈন, তেলেগু, হিন্দু কিম্বা বৌদ্ধ

নিজ বাহুতে করেছি আবদ্ধ;

তারাই আজ নিষ্ঠুর অকৃতজ্ঞ,

আমারই উপর চালায় হত্যাযজ্ঞ!!

জগত জুড়ে আজ

মুসলিম কেন বলীর পাঁঠা?

পৃথিবীর খলিফা যারা,

অনেকেরই জমি নাই এক কাঠা!

কেউ শুনেনা তাদের চিতকার গলাফাটা।

এখানে স্বর্গ নরক হয়েছে

হিন্দু জালিমের থাবায়,

মৃত্যুদূতের পদধ্বনি

রাতদিন শোনা যায়!

এখানে স্বর্গ ছিল

এই তো ক’দিন আগে,

অশ্রু আর রক্ত স্রোতে

ভেসে গেছে কাশ্মির

ভরে গেছে বিলাপ সোহাগে!

এমন করেই কি মুসলিম মার খাবে জগত জুড়ে?

কোন ইমাম আসবে না কি সকল বাধা ফুঁড়ে?

যাঁর হাতে বেদ্বীন কাফির মুশরিক ধ্বংস হয় কোন এক ভোরে।

সেদিনের অপেক্ষায় অধীর আগ্রহে চেয়ে আছি,

আপন জনেরে কবর দিয়ে

বাস করি মৃত্যুর কাছাকাছি।

মন্তব্য করুন

অনুগ্রহ করিয়া এখানে আপনার মন্তব্য লিখুন!
অনুগ্রহ করিয়া এখানে আপনার নাম লিখুন!