বাবরী থেকে কুতুপালং, চেতনার বিবর্তন !! অপু আলম

প্রথম ছবিটির বিষয়ে কথা বলে নেই। এটা ইনকি-লাভ নামক গাউছুল আযমের পুজারী, কথিত তৌহিদী জনতার মুখপাত্র খেতাব পাওয়া পত্রিকার মিথ্যাচার, কারসাজীমূলক হেডিং বা লেখার শিরোনাম। কুতুপালং ক্যাম্পের সর্ব বৃহৎ, মারকাজ মসজিদটি বিনা নোটিশে ভেঙ্গে ফেলা হয়েছে। এর বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করেছে খেলাফত যুব মজলিশ সহ কয়েকটি দল। কয়েকজন আলেমও প্রতিবাদ জানিয়েছেন।
.
তারা দাবি করেছেন দ্রুত মসজিদটি পুর্ননির্মান করে দোষীদের শাস্তি দিতে। অথচ ইনকি- লাভ নিউজ করলো এভাবে “কুতুপালং মসজিদ পুর্ননিমার্ণ” ! প্রথম দেখাতে যে কেউ মনে করবে ভুলে ভেঙ্গে ফেলা হয়েছিলো, এখন তো পুর্ননির্মান করা হয়েছে, যাক বালা গেছে। মনে হচ্ছে অন লাইনে সরব কিছু ব্যক্তিবর্গকে নিরব করে দিতেই এই কুটিল চালটি দিয়েছে গাউছুর আযমের উম্মত বাহাউদ্দিনের পত্রিকা।
.
এবার আসা যাক আসল কথায়।
মসজিদটি নির্মানে মাওলানা মামুনুল হক সাহেবের টিম ব্যপক পরিশ্রম করেছেন যেটা আমারা চোখে দেখেছি। তিনি সম্ভবত দেশে নেই, শুনেছি ওমরা করতে গিয়েছেন। এই অবস্থায় মসজিদটি ভেঙ্গে ফেলার আগে তাদের সাথে পরামর্শ করা অথবা মসজিদের পরিচালনার দায়িত্ব্যে থাকা লোকদের নোটিশ প্রদাণ করা উচিত ছিলো অবশ্যই।
.
কিন্তু তার ধারধারে না গিয়ে মসজিদ ভেঙ্গে ফেলা হয়েছে। অথচ আশ্চায্যের বিষয় হচ্ছে অন লাইনে সক্রিয় কাউকে আমি তেমন প্রতিবাদ করতে দেখলাম না। দু একজন যাই প্রতিবাদ করেছন, তেমন সাড়া নেই। আমরা আছি নিজেদের ভাবনা নিয়ে।
.
তাহলে কি ধরে নিতে হবে, বাবরী মসজিদের বেলায় আমরা আপামর জনতা যে রিএ্যাকশান দেখিয়েছি, চেতনার বর্হিঃপ্রকাশ ঘটিয়েছি, আজকে নির্যাতিত রোহিঙ্গা জনগোষ্টির ঈমান আক্বীদা হেফাজতের নিমিত্তে নির্মিত মসজিদের বেলায় সেটা সম্ভব হচ্ছে না ! চেতনার এত কঠিন বিবর্তন হয়েছে এটা কি আমরা উপলদ্ধি করতে পারছি ?
.
বৃহত্তর ইসলামী দলগুলোর কি কোন ভুমিকা নেই ! বিনা প্রয়োজনে বিশাল মিছিল, লংমাচ করা দলগুলোর মসজিদ প্রিতী দেখে আমি যথেষ্ট সন্দিহান। আসলে আমরা কি সঠিক ট্র্যাকে আছি ? নাকি এটা মামুনুল হক সাহেবদের হাতে নির্মিত হয়েছে বলে এর পক্ষে কিছু বলা যাবে না ?
.
এই যদি হয় অবস্থা তাহলে আমাদের ইসলামী পরিচয় তো সংকির্ণ দলবাজীতে রুপান্তরিত হয়ে গেলো। আসুন, কুতুপালংয়ের বৃহত্তর মার্কাজ মসজিদটি উদ্ধারে দল মত নির্ভিশেষে দুর্বার আন্দোলন গড়ে তুলি। এই আন্দোলনে নেতৃত্ব দেখার দরকার নেই, দরকার ঈমানী জজবার !

No automatic alt text available.
Image may contain: one or more people

মন্তব্য করুন

অনুগ্রহ করিয়া এখানে আপনার মন্তব্য লিখুন!
অনুগ্রহ করিয়া এখানে আপনার নাম লিখুন!