পাক-ভারত উত্তেজনায় কলকাঠি নাড়ছে ইসরাইল: রবার্ট ফিস্ক

ব্রিটেনের বিখ্যাত সাংবাদিক রবার্ট ফিস্ক বলেছেন, পাকিস্তান-ভারত উত্তেজনার পেছনে বড় ভূমিকা রাখছে ইসরাইল। নয়াদিল্লীর ওপর ইসরাইলের ক্রমবর্ধমান প্রভাবের ফলেই সম্প্রতি পাক-ভারত সীমান্তে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়েছে।

পাক-ভারত উত্তেজনায় কলকাঠি নাড়ছে ইসরাইল: রবার্ট ফিস্ক
নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে নেতানিয়াহু। ছবি: সংগৃহীত

ব্রিটিশ দৈনিক ইন্ডিপেনডেন্টে বৃহস্পতির প্রকাশিত এক নিবন্ধে একথা বলেন তিনি।রবার্ট ফিস্কের মতে, পাক-ভারত উত্তেজনা উস্কে দিয়ে ইসরাইল তার অস্ত্র ব্যবসা আরও রমরমা করতে চাইছে।সেই সঙ্গে ইসরায়েলের ওপর ভারতের নির্ভরতা আরও বাড়াতে চাইছে নেতানিয়াহুর সরকার।

রবার্ট ফিস্ক বলেন, পাকিস্তান ভারতের মধ্যে যুদ্ধ লাগিয়ে দিয়ে অস্ত্রের ব্যবসা রমরমা করতে চাইছে ইসরায়ের। উদাহরণ হিসেবে তিনি বলেন, মঙ্গলবার পাকিস্তানের সীমান্তরেখার ওপর চালানো হামলায় ইসরাইলের তৈরি স্পাইস-২০০০ ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবহার করে ভারত। মূলত এ সংঘাতের মধ্য দিয়ে ইসরাইল যে লাভের অংক গুনছে এটি তার পরিষ্কার প্রমাণ।নয়াদিল্লির কাছে আরও অস্ত্র বিক্রির লক্ষ্য নিয়ে কাজ করছে তেল আবিব।

ভারতের হিন্দু জাতীয়তাবাদকে উস্কে দিয়ে দুই প্রতিবেশি দেশের মধ্যে যুদ্ধ লাগিয়ে দেয়ার চেষ্টায় ইসরায়েল কলকাঠি নাড়ছে এমন মতামত রবার্ট ফিস্কে। তিনি বলেন, ভারতের হিন্দু জাতীয়তাবাদীদের মধ্যে বিদ্যমান মুসলমান বিরোধী চেতনাকে পুঁজি করতে চাইছে ইসরাইল। নয়াদিল্লির কাছে আরও অস্ত্র বিক্রির লক্ষ্য নিয়ে এমনটি চাইছে তেল আবিব।

পাক-ভারত দূরত্ব সৃষ্টি করে তেলআবিবের ওপর নয়াদিল্লীর নির্ভরতা আরও বাড়ানোর পরিকল্পনা নিয়ে নেতানিয়াহুর সরকার কাজ করছে এমন মত দিয়ে ফিস্ক বলেন, ভারতের সঙ্গে সম্পর্ক আরও গভীর করতে এবং পাক-ভারত সম্পর্ককে আরও উত্তেজনার দিকে ঠেলে দিতে তৎপর রয়েছে ইসরাইল।

প্রসঙ্গত, ২০১৭ সালে ইসরাইলের অস্ত্রের সবচেয়ে বড় ক্রেতা ছিল ভারত। ইসরাইলি বিমান প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা কিনতে ভারত ব্যয় করেছে ৭০ কোটি ডলার।

যুগান্তর ডেস্ক

মন্তব্য করুন

অনুগ্রহ করিয়া এখানে আপনার মন্তব্য লিখুন!
অনুগ্রহ করিয়া এখানে আপনার নাম লিখুন!