নাগরিকের বিরুদ্ধে মামলায় হেরে গেলেন প্রেসিডেন্ট, দিলেন জরিমানা

সাধারণ এক নাগরিকের বিরুদ্ধে মামলায় দায়ের করে সেই মামলায় আদালতের লড়াইয়ে হেরে গেলেন তিউনিসিয়ার প্রেসিডেন্ট বেজি সাইদ এসেবসি, শুধু তাই নয় এবার ওই নাগরিককে ক্ষতিপূরণ দিতে হবে তার। ২০১৪ সালে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রেসিডেন্ট ও তার পরিবারের বিরুদ্ধে পোস্ট দেয়ায় তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছিলেন স্বয়ং প্রেসিডেন্ট।

নাগরিকের বিরুদ্ধে মামলায় হেরে গেলেন প্রেসিডেন্ট, দিলেন জরিমানা
তিউনিসিয়ার প্রেসিডেন্ট বেজি সাইদ এসেবসি – ছবি : সংগ্রহ

তিউনিসিয়ার সংবাদমাধ্যমগুলো জানিয়েছে, ইমাদ দেঘজি নামের ওই নাগরিকের বিরুদ্ধে মামলায় হেরে যাওয়ার পর আদালত প্রেসিডেন্টকে নির্দেশ দিয়েছে ইমাদকে মামলা পরিচালনার যাবতীয় খরচ ক্ষতিপূরণ হিসেবে দিতে। ইমাদ লিগ ফর প্রটেকশন দা রেভ্যুলেশন নামের একটি সংগঠনের প্রধান ছিলেন।

রাজধানী তিউনিসের আদালতে দায়ের করা ওই মামলায় বলা হয়েছিল, ইমাদ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এমন ভিডিও ও মন্তব্য পোস্ট করেছিলেন যা প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে উস্কানি এবং তার ও তার পরিবারের প্রতি হুমকি। ২০১৭ সালে বিচারিক আদালত ওই অভিযোগ বিচারে আসামীকে ৩ মাসের কারাদণ্ড ও জরিমানা করেছিল; কিন্তু রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে আপিল করে ইমাদ। আর আপিলে তার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ প্রমাণ হয়নি। ফলে তিনি খালাস পেয়ে যান মামলায়।

গত সপ্তাহে আপিল আদালতের রায়ে আসামী শুধু খালাসই দেয়া হয়নি। বাদী অর্থাৎ প্রেসিডেন্ট সাইদ এসেবসিকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে আসামীর মামলা পরিচালনার যাবতীয় খরচ পরিশোধ করতে।

মামলার এই রায়টি তিউনিসিয়ায় ব্যাপক আলোড়ন তুলেছে। অনেকেই বলছেন, এটিই ২০১১ সালের বিপ্লবের ফসল। সে বছর উত্তর আফ্রিকার মুসলিম প্রধান এই দেশটির বিপ্লবের সূত্র ধরেই শুরু হয়েছিল আরব বসন্তের।

  • (নয়া দিগন্ত অনলাইন)

মন্তব্য করুন

অনুগ্রহ করিয়া এখানে আপনার মন্তব্য লিখুন!
অনুগ্রহ করিয়া এখানে আপনার নাম লিখুন!